ধর্ষণের মিথ্যা মামলা করায় বাদীর পাঁচ বছরের কারাদণ্ড

বাংলাদেশ

জয়পুরহাটে ধর্ষণের মিথ্যা মামলা করায় বাদী গৃহবধূ লিলিফা বানুকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ও তিন হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো দুই মাসের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল আদালত।

আজ সোমবার বিকেলে জয়পুরহাটের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রুস্তম আলী এ রায় দেন। সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) অ্যাডভোকেট নৃপেন্দ্রনাথ মণ্ডল জানান, ২০১৯ সালে ২৩ জুন জেলার সদর উপজেলার এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠে।

এ ঘটনায় একই গ্রামের রুহুল আমিন নামের এক ব্যক্তিকে আসামি করে লিলিফা বানু নামের এক গৃহবধূ মামলা করেন। কয়েক মাস ধরে এ মামলার শুনানি শেষে আদালতে অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হয়।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রুস্তম আলী মিথ্যা মামলা করার অপরাধে বাদী লিলিফা বানুকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড ও তিন হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরো দুই মাসের সশ্রম কারাদণ্ডের আদেশ দেন। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষকে ফাঁসানোর জন্য এ ধর্ষণের মিথ্যা মামলা করা হয়েছিল বলে জানা গেছে।