ওই নারী মামুনুলের স্ত্রী নন: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

বাংলাদেশ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল রোববার বলেছেন, সোনারগাঁও রিসোর্টে হেফাজতের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের সাথে যে নারী ছিলেন তিনি তার স্ত্রী নন। হাটহাজারী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ও সোনারগাঁওয়ে তাণ্ডবের প্রসঙ্গে ৩০০ বিধিতে দেয়া বিবৃতিতে সংসদে এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী।

তিনি বলেন, সোনারগাঁও উপজেলার একটি রিসোর্টে মামুনুল হক এক নারীকে নিয়ে অবস্থান করছিলেন। ‘তিনি তার স্ত্রী নন। এ বিষয়ে আমি আরো ঘটনা জেনে সবাইকে জানাব।’ মন্ত্রী বলেন, টেলিভিশনে ঘটনাটি প্রচারের পরে হেফাজত লোকেরা কেন রিসোর্টটিতে হামলা করেছিল তা তিনি জানেন না।

‘সেখানে কয়েকজন বিদেশী ছিলেন। পুলিশ ও বিজিবি গিয়ে তাদের রক্ষা করেছে,’ বলেন তিনি। দেশব্যাপী সম্প্রতি হেফাজতের তাণ্ডবের প্রসঙ্গে তিনি বলেন, হঠাৎ করে এই ধরনের তাণ্ডব কেন, নিশ্চয়ই এর পেছনে কোনো উদ্দেশ্য রয়েছে। তিনি আরো বলেন, ‘আমরা তদন্ত করে দেখছি। যারাই তাণ্ডব করে থাকুক তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে, কাউকে ছাড় দেয়া হবে না’।

উল্লেখ্য, শনিবার হেফাজত নেতা মামুনুলকে এক নারীসহ রিসোর্টে আটক করে স্থানীয়রা। মামুনুল হক ওই নারীকে নিজের দ্বিতীয় স্ত্রী বলে দাবি করেন। তাকে আটকের খবর ছড়িয়ে পড়লে হেফাজত কর্মী ও তার অনুসারীরা রাতে রিসোর্টে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করে। পরে মামুনুলকে সেখান থেকে নিয়ে যায় তারা।
সূত্র : ইউএনবি