বাগেরহাটে হেফাজতকর্মীদের হামলায় ওসিসহ ৫ পুলিশ সদস্য আহত

বাংলাদেশ

বাগেরহাটে হেফাজতকর্মীদের হামলায় মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাসহ (ওসি) পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। আজ সোমবার বেলা ১১টার দিকে শহরের হাসপাতাল মোড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

বিষয়টি দ্য ডেইলি স্টারকে নিশ্চিত করেছেন বাগেরহাটের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এএসপি) মীর শাফিন মাহমুদ। তিনি জানান, হেফাজতের কর্মীরা মিছিল করার জন্যে হাসপাতাল মোড়ে জড়ো হলে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। সেসময় হেফাজতকর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ছুড়লে মোল্লাহাট থানার ওসি কাজী গোলাম কবীরসহ পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হন। তারা এখন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

ওসি কাজী গোলাম কবীর ডেইলি স্টারকে বলেন, ‘হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম মহাসচিব মামুনুল হকের গ্রেপ্তারের প্রতিবাদের শহরের বিভিন্ন মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা শহরের হাসপাতাল মোড়ে জড়ো হয়। খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গেলে তারা আমাদের ওপর হামলা চালায়। এতে আমিসহ পাঁচ পুলিশ সদস্য আহত হন।’

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে ইসলামী রাজনীতি চলবেই চলবে: ইসলামী আন্দোলন

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সভাপতি মাওলানা মুহাম্মদ ইমতিয়াজ, সেক্রেটারী মাওলানা এবিএম জাকারিয়া এক যুক্ত বিবৃতিতে বলেছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি) `ক্যাম্পাসে ইসলামী রাজনীতি চলতে পারবে না’ ছাত্রলীগের এমন বক্তব্য দেশে নতুন করে সঙ্কট সৃষ্টি করবে। ছাত্রলীগের এমন হুশিয়ারি দেশের সাম্প্রীতি নষ্ট করে দেশকে উত্তপ্ত করে তুলবে।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে ইসলামী রাজনীতি চলবেই চলবে। কেউ বাধা দিতে পারবে না। মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) এক যুক্ত বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় ছাত্রলীগের সভাপতি সনজিত চন্দ্র দাস-এর বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিয়ে চক্রান্ত করলে তারাই ইতিহাসের আস্তাকুঁড়ে নিক্ষিপ্ত হবে। তার এ বক্তব্য সন্ত্রাসীদের উস্কে দিবে।

নেতৃদ্বয় আরও বলেন, ধর্মভিত্তিক রাজনীতি নিয়ে যে কোন ধরণের চক্রান্ত সহ্য করা হবে না। ছাত্রলীগের দেশব্যাপী ধর্ষণকে ঢাকতেই নতুন স্বর তুলে দেশবাসীর দৃষ্টিকে আড়াল করতে চাচ্ছে। সিলেটের এমসি কলেজে ধর্ষণের সাথে জড়িতে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের কঠোর শাস্তি দিতে হবে।