ফেসবুক বান্ধবীকে ২৫ জনে ধর্ষণ!

বাংলাদেশ

ভারতের দিল্লিতে এক নারীকে গণধর্ষণের অভিযোগ ২৫ জনের বিরুদ্ধে। ৩ মে ওই নারীকে গণধর্ষণ করা হয়েছিল বলে অভিযোগ করা হয়েছে। ঘটনার ৯ দিন পরে নারী থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। ৪ বছর ধরে দিল্লিতে গৃহকর্মীর কাজ করেন ওই নারী। দিল্লিতেই তিনি থাকেন।

চলতি বছরের জানুয়ারিতে নারীর সঙ্গে ফেসবুকে সাগর নামের এক ব্যক্তির পরিচয় হয়। দু’জনের মধ্যে ফোন নম্বরও বিনিময় হয়। বেশ কিছুদিন পর সাগর ওই নারীকে বিয়ের প্রস্তাব দেন ও নিজের মা-বাবার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়ার কথা বলেন। তারপরে নির্যাতিতাকে দেখা করতে হোদলে আসতে বলেন ওই যুবক।

৩ মে নির্যাতিতা সাগরের সঙ্গে দেখা করতে হোদল আসেন। এরপর ওই যুবক নির্যাতিতাকে রামগড় গ্রামের একটি জঙ্গলে নিয়ে যান বলে অভিযোগ। ওখানে আগে থেকেই সাগরের ভাই ও তার কয়েকজন বন্ধু মদের আসর বসিয়েছিলেন। নারী ওখানে যাওয়ার পরই তাকে সবাই পালা করে ধর্ষণ করেন বলে অভিযোগ।

পরের দিন, নারীকে আকাশ নামে একজন ব্যবসায়ীর কাছে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেও নির্যাতিতাকে পাঁচজন ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। বারবার যৌন নির্যাতনের পরে নারীর অবস্থার অবনতি ঘটলে ৫ অভিযুক্ত তাকে বদরপুর সীমান্তের কাছে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যান।

১২ মে নারী হাসানপুর থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন নির্যাতিতা। নারী পুলিশকে জানিয়েছেন যে তিনি অসুস্থ থাকায় অভিযোগ দায়ের করতে দেরি হয়েছে। হাসানপুর থানার এসএইচও রাজেশ জানিয়েছেন, তারা শুক্রবার সাগরকে গ্রেফতার করেছে। বাকিদের ধরার চেষ্টা চলছে।

সূত্র: আনন্দবাজার