বাজেটের পর বাজারে আগুন

বাংলাদেশ

বাজেট পেশের পরদিনই বেড়েছে নিত্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন পণ্যের দাম। শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে বাজারে তেল,চাল, পেঁয়াজ ও সবজির দাম বেড়েছে।

বাজেট পেশের আগেই দাম বেড়েছিল সয়াবিনের। তবে বাজেটের পরদিন বাড়তি দামে বিক্রি হয়েছে বোতলজাত সয়াবিন তেল। পেঁয়াজের দাম বেড়েছে কেজিতে ৮ থেকে ১০ টাকা। মোটা চালের দাম বেড়েছে কেজিতে ২-৩ টাকা।

এ ব্যাপারে ব্যবসায়ীরা বলছেন, সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে বড় ব্যবসায়ীরা আগেই দাম বাড়িয়েছেন। বাজেট উপলক্ষে আজ থেকে সয়াবিনের বাড়তি দামের বোতল বাজারে ঢুকেছে।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ৫ লিটার বোতলের সয়াবিন বিক্রি হয়েছিল ৬৬৫ টাকায়। শুক্রবার তা বিক্রি হচ্ছে ৭২৮ টাকায়। একইভাবে সকাল থেকে বেড়েছে পেঁয়াজের দামও। সাধারণ পেঁয়াজ (হাইব্রিড) বৃহস্পতিবার থেকে বিক্রি হচ্ছে ৫০ থেকে ৫২ টাকায়।

যা আগে ছিল ৪০ থেকে ৪৫ টাকা। দেশি জাতের পাবনাসহ উত্তরাঞ্চলের পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৬৫ থেকে ৭০ টাকা। আগে যা ছিল ৫০ থেকে ৫২ টাকায়। একইভাবে চালের দাম বেড়েছে কেজিতে দুই থেকে তিন টাকা। মোহাম্মদপুর শিয়া মসজিদ বাজারের চাল ব্যবসায়ীরা

জানান, বাজেটের কারণে মোটা চালের দাম বেড়েছে। মিনিকেট চালের দাম যেটুকু কমেছিল বাজেটের পর সেটা আগের দামে ফিরে গেছে। মোটা চালের দাম বেড়েছে কেজিতে দুই থেকে তিন টাকা।এদিকে মিনিকেট ১ নম্বরটা বেড়ে ৬২ টাকা হয়েছিল।

পরে কমে ৫৬ টাকা হয়েছিল। আজ থেকে আবার ৬২ টাকা। মোটা চাল কেজিতে বেড়েছে ২ থেকে ৩ টাকা। বিক্রি হচ্ছে ৪৫ থেকে ৪৬ টাকায়। এই বাজারের পেঁয়াজ-রসুন ব্যবসায়ীরা জানান, পেঁয়াজের দাম বেড়েছে কেজিতে ৫ থেকে ১০ টাকা।

আগামীকাল শনিবার থেকে দাম বাড়ার কথা। আজ থেকেই সব দোকানেই বাড়তি দামে বিক্রি হচ্ছে। আজ সবাই ৬৫ থেকে ৭০ টাকা দামে পাবনার পেঁয়াজ বিক্রি করছে। এছাড়া আটাও প্রতি কেজিতে বেড়েছে ২ টাকা।

বেড়েছে সবজির দামও। রাজধানীর বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে,লম্বা বেগুনের দাম বেড়ে দ্বিগুণের কাছাকাছি হয়েছে একদিনে। আগে লম্বা বেগুন ২৮ টাকায় কিনে ৪০ টাকায় বিক্রি করেছেন সবজি বিক্রেতারা।

শুক্রবার ৪০ টাকায় কিনে ৫০ টাকায় বিক্রি করতে হচ্ছে। ৪০ টাকার শসা শুক্রবার বিক্রি হচ্ছে ৫০ টাকায়। অন্য সবজির দামও বেড়েছে বলে জানিয়েছেন সবজি ব্যবসায়ীরা।