পরকীয়া সন্দেহে স্ত্রীর বিশেষ অঙ্গ সেলাই করলেন স্বামী

বিনোদন

বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে লিপ্ত স্ত্রী। এই সন্দেহে শারীরিক ও মানসিক অত্যাচার চলতই। কিন্তু এখানেই শেষ নয়, স্ত্রীর বিশ্বাসযোগ্যতা প্রমাণে অ্যালুমিনিয়ামের তার দিয়ে তার বিশেষ অঙ্গ সেলাই করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক পাষণ্ড স্বামীর বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশের রামপুর জেলার মিলাক এলাকায়।

আপাতত হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ওই নারী। এরই মধ্যে অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।
জানা গেছে, বছর দু’য়েক আগে ওই তরুণীর বিয়ে হয় পেশায় ট্রাক ড্রাইভার ওই ব্যক্তির সঙ্গে। একটি সন্তান হলেও জন্মের সময়ই সে মারা যায়। স্ত্রী অন্য কারও সঙ্গে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্কে লিপ্ত বলে বেশ কিছু দিন ধরেই সন্দেহ করতে শুরু করেন ওই ব্যক্তি।

এর জেরে তাকে মারধরও করতেন বলে অভিযোগ স্ত্রীর। এরপর ওই ব্যক্তি তার স্ত্রীর বিশ্বাসযোগ্যতার পরীক্ষা নিতে চান। বাধ্য হয়ে স্ত্রীও রাজি হয়ে যান। তারপরই হাত-পা বেঁধে তার বিশেষ অঙ্গে সেলাই করে পালিয়ে যান ওই স্বামী।

নির্যাতিতা নারী কোনও রকমে পাশের গ্রামে বাপের বাড়ি খবর পাঠান। তার মা গিয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় মেয়েকে উদ্ধার করে স্থানীয় স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করেন। স্থানীয় রামপুর জেলা হাসপাতালে বছর চব্বিশের ওই নারীর ‘মেডিকেল টেস্ট’ করিয়েছে পুলিশ। চিকিৎসকরাও সেলাই করার কথা নিশ্চিত করেছেন।

পুলিশের কাছে ওই নারী বলেছেন, মাঝে মধ্যেই কোনও কারণ ছাড়াই স্বামী তাকে মারধর করতেন। সন্দেহ করতেন, অন্য কারও সঙ্গে সম্পর্ক রয়েছে। বিশ্বাসযোগ্যতার প্রমাণ দিতে বলেন তিনি। কিন্তু স্বপ্নেও ভাবিনি, এই রকম ভয়ঙ্কর কাজ তিনি করতে পারেন। পুলিশ জানিয়েছে, নির্দিষ্ট ধারায় মামলা রুজু করে তদন্ত শুরু হয়েছে। সূত্র: আনন্দবাজার