রোহিঙ্গা গণহত্যার প্রমাণসহ আন্তর্জাতিক আদালতে দলিল দিল গাম্বিয়া

আন্তর্জাতিক

মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা মুসলিম গণহত্যা মামলায় হেগের আন্তর্জাতিক বিচার আদালত আইসিজে গাম্বিয়া আরও দলিলপত্র দাখিল করেছে। দেশটি আগের ৫০০০ পৃষ্ঠার সঙ্গে আরও ৫০০ পৃষ্ঠার নতুন এ ডকুমেন্ট যুক্ত করে।

শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন ফরটিফাই রাইটসের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়। নতুন এই দলিলপত্রে রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর চালানো মিয়ানমার সেনাবাহিনীর গণহত্যার প্রমাণ রয়েছে।

মিয়ানমার সেনাবাহিনী কীভাবে রোহিঙ্গা মুসলিমদের বিরুদ্ধে গণহত্যা সংঘটিত করছে তার তথ্য-উপাত্তও সেখানে রয়েছে। ওই বিবৃতিতে সংগঠনটির চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার ম্যাথিউ স্মিথ বলেন, মিয়ানমার সরকারকে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতের রায় মেনে নিয়ে রাখাইনে নিষ্ঠুরতা বন্ধ করতে হবে।

রোহিঙ্গাদের ন্যায়বিচারের পক্ষে শুক্রবার থেকে নতুন পদক্ষেপ শুরু হল। আইসিজের মতো আন্তর্জাতিক বিচার সংস্থার কাছে মিয়ানমারকে অবশ্যই রোহিঙ্গাদের অধিকার ফিরিয়ে দিতে ও জবাবদিহিতা করতে হবে।

২০১৯ সালের নভেম্বরে আন্তর্জাতিক বিচার আদালতে রোহিঙ্গা গণহত্যায় মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা করে গাম্বিয়া। শুক্রবার গাম্বিয়ার দাখিল করা রোহিঙ্গা গণহত্যা সংক্রান্ত ডকুমেন্টের জবাবে আগামী বছরের ২৩ জুলাই মিয়ানমার সরকার তাদের বক্তব্য উপস্থাপন করবে।

আইসিজে ও আইসিসির বিচার কাজ পর্যবেক্ষণ করছে ফরটিফাই রাইটস। বিবৃতিতে বলা হয়, রাখাইনের প্রায় ৬ লাখ রোহিঙ্গা মিয়ানমারের রোষানলের শিকার হয়েছে। রাখাইনে মিয়ানমার যে গণহত্যা চালিয়েছে তা প্রত্যক্ষ করেছে রোহিঙ্গারা।

চলতি বছরের ২৩ জানুয়ারি আন্তর্জাতিক বিচার আদালত মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগ আনে। তারা মিয়ানমার সরকারকে গণহত্যা বন্ধে সবরকমের পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানায়। রাখাইনে খুন এবং শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন বন্ধ করতে মিয়ানমার সরকারকে আহ্বান জানিয়েছেন তারা।