সন্তানরা বেঁচে থাকলেও সম্পত্তি লিখে দিলেন কুকুরের নামে!

আন্তর্জাতিক

সন্তানরা বেঁচে থাকলেও এক ব্যক্তি ১৮ একর জমির অর্ধেক তার কুকুরকে লিখে দিয়েছেন। এমন ঘটনা ঘটেছে ভারতের মধ্য প্রদেশে। ছিন্দোয়ারা প্রদেশের বাড়িবাবা গ্রামের বাসিন্দা ওম নারায়ণ ভার্মা এমনটা করেছেন। ভারতের দ্য ডেইলি স্টার নয়াদিল্লির প্রকাশিত সংবাদ থেকে জানা যায়, তিনি তার সন্তানদের জন্য সম্পত্তির কিছুই দিচ্ছেন না। দুদিন আগে তিনি জমির নতুন করে তৈরি দলিলে লিখেছেন, ১৮ একর জমি তার স্ত্রী ও কুকুরের মধ্যে সমানভাবে ভাগ হয়ে যাবে।

সাবেক গ্রামপ্রধান ওম নারায়ণ ভার্মা এ প্রসঙ্গে বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর, ২০২০) সাংবাদিকদের বলেন, ছেলেমেয়েদের প্রতি আমার আস্থা নেই। তাই আমার মৃত্যুর পরে স্ত্রী ও পোষা কুকুরকে সম্পত্তির মালিক করছি। তবে, কুকুরের মৃত্যুর হলে যে তার দেখাশোনা করবে সে সম্পত্তির ওই অংশ পাবে বলেও জানান তিনি। সম্প্রতি নিজের শেষ উইলটি করেন ওই ব্যক্তি।

তাতেই তিনি নিজের সমস্ত সম্পত্তি দ্বিতীয় স্ত্রী চম্পা বাঈ এবং কুকুর জ্যাকির নামে লিখে দেন। তাতে বলেন, তার মৃত্যুর পর অর্ধেক সম্পত্তি স্ত্রী চম্পা বাঈ পাবে। বাকি অর্ধেক জ্যাকির। যিনি জ্যাকির দেখভাল করবেন, তিনিই ওই বাকি সম্পত্তি পাবেন। সেই সম্পত্তি জ্যাকির মৃত্যুর পর তিনিই পাবেন।
তিনি জানান, সন্তানেরা কেউই তার দেখভাল করেনি। তার দ্বিতীয় স্ত্রী এবং জ্যাকি সবসময় সঙ্গে থেকেছে।

তা ছাড়া তার মৃত্যুর পর জ্যাকির দেখভালও কেউই করত বলে বিশ্বাস হয় না। তাই এই সবকিছুই ভেবে তিনি এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। এদিকে গ্রামের পঞ্চায়েত প্রধান এই প্রসঙ্গে জানান, ছেলেমেয়েদের সঙ্গে ওই ব্যক্তির ঝামেলা চলছিল। তাই হঠকারিতায় এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আমরা ওই ব্যক্তির সঙ্গে কথাও বলেছি। তবে এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসতেই স্থানীয়দের অনেকেই অবাকও হয়েছেন। সূত্র : দ্য ডেইলি স্টার নয়াদিল্লি