ফিলিস্তিনিকে হত্যা করে সন্ত্রাসবাদী কাজ করেছে ইসরাইল: ইলহান

আন্তর্জাতিক

গাজায় বিমান হামলা করে নিরপরাধ ৯ শিশুসহ ২০ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করে সন্ত্রাসবাদী কাজ করেছে ইসরাইল বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের মুসলিম নারী আইনপ্রণেতা ইলহান ওমর।সোমবার (১০ মে) এক টুইটবার্তায় তিনি এ কথা বলেন বলে জানিয়েছে তুরস্কের সংবাদ সংস্থা আনাদোলু এজেন্সি।

তিনি বলেন, ফিলিস্তিনিদেরও নিজেদের রক্ষা করার অধিকার আছে। ইসরায়েল নিজেদের ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষাব্যবস্থা আয়রন ডোম দিয়ে নিজেদের সুরক্ষিত করে নিরস্ত্র ফিলিস্তিনিদের ওপর নির্বিচারে বিমান হামলা করছে।

তিনি আরও বলেন, পবিত্র রমজানের এ সময় যখন ঈদের জন্য মুসলিমরা অধীর আগ্রহ নিয়ে অপেক্ষায় আছেন, তখন বর্বরোচিত হামলা শুরু করেছে ইসরায়েল।
ইসরাইলকে এ কাজে মদদ দেওয়ার জন্য যুক্তরাস্ট্রের সরকারেরও কঠোর সমালোচনা করেন তিনি।

জেরুজালেমের শেখ জারাহ এলাকায় ২৬টি ফিলিস্তিনি পরিবারকে জোর করে তাদের বাড়িঘর থেকে বের করে তা দখল করে অবৈধ ইহুদি বসতি গড়ারও তীব্র নিন্দা জানান ইলহান। তিনি এখনই ইসরাইলের লাগাম টেনে ধরার আহ্বান জানান আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাছে।

এদিকে ইসরায়েলের সেনাবাহিনী ও ফিলিস্তিনি সশস্ত্র গোষ্ঠী হামাসের মধ্যে চলছে ব্যাপক গোলাগুলি। সোমবার (১০ মে) থেকে এ মঙ্গলবার (১১ মে) পর্যন্ত ইসরায়েলকে লক্ষ্য করে দুই শতাধিক রকেট নিক্ষেপ করা হয়েছে।

হামাসের সামরিক উইং কাসেম ব্রিগেড জানিয়েছে, পূর্ব জেরুজালেমের শেখ জাররাহ এলাকা থেকে ফিলিস্তিনিদের উচ্ছেদের চেষ্টা এবং পবিত্র আল-আকসা মসজিদে ইসরায়েলি তাণ্ডবের প্রতিবাদে এসব হামলা চালানো হচ্ছে।

এর আগে, কাসেম ব্রিগেড শপথ করে ঘোষণা দেয়, আগ্রাসন না থামালে ইসরায়েলের দক্ষিণাঞ্চলীয় আশকেলন শহরকে ‘জাহান্নাম’ বানিয়ে দেবে তারা।ইসরায়েলিদের উদ্দেশে হামাসের সামরিক উইং থেকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলা হয়, ‘এই বার্তাটি শত্রুদের অবশ্যই ভালোভাবে বুঝতে হবে: তোমরা সাড়া দিলে আমরা সাড়া দেব, তোমরা এগোলে আমরাও এগোব।’

বার্তা সংস্থা এএফপি জানিয়েছে, হামাসের ছোড়া রকেটের আঘাতে ইসরায়েলের বেশ কিছু স্থাপনা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এর মধ্যে আশকেলন শহরে একটি অ্যাপার্টমেন্ট এবং বেইত নেকোফা এলাকায় একটি বাড়ি ধ্বংস হয়ে গেছে।