মাঠে ফিলিস্তিনের পতাকা হাতে সমর্থন জানালেন ‘বাংলাদেশি’ হামজা

আন্তর্জাতিক

ফিলিস্তিনের মুসলিমদের ওপর ইসরায়েলি হামলা অব্যাহত রয়েছে। একের পর এক বিমান হামলায় নারী-শিশু নির্বিচারে হত্যা করে চলেছে ইসরায়েল। প্রতিনিয়ত বাড়ছে হতাহতের সংখ্যা।

ইসরায়েলি এই আগ্রাসনের প্রতিবাদে ফুঁসে উঠেছে সারা বিশ্বের মুসলিমরা। সামর্থ্য অনুযায়ী নিজ নিজ জায়গা থেকে প্রতিবাদ জানাচ্ছেন মুসলিমরা। এই প্রতিবাদে শামিল হয়েছেন ক্রীড়াঙ্গনের মানুষও।

এবার এফএ কাপ জয়ের মঞ্চে দাঁড়িয়ে ইসরায়েলি হামলা-নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানালেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ফুটবলার হামজা চৌধুরী। লেস্টার সিটির হয়ে খেলা এই ফুটবলার মাঠেই ফিলিস্তিনের পতাকা হাতে দাঁড়িয়ে যান।

বিশ্ববাসীকে জানিয়ে দেন ফিলিস্তিনের ওপর ইসরায়েলের নির্মমতার কথা। ওয়েম্বলিতে শনিবার (১৫ মে) রাতে এফ এ কাপের ফাইনালে চেলসিকে ১-০ গোলে হারিয়ে নিজেদের ক্লাব ইতিহাসে প্রথমবারের মতো এফএ কাপের শিরোপা জিতেছে লেস্টার সিটি।

এর আগে তিনবার এফএ কাপের ফাইনালে উঠলেও শিরোপার দেখা পায়নি তারা। ৫২ বছর পর স্বপ্নের শিরোপা হাতে উল্লাস করেছে লেস্টার সিটি। এর আগে সবশেষ এই টুর্নামেন্টের শিরোপা ঘরে তুলেছিল ১৯৬৯ সালে।

ফাইনাল ম্যাচের পর শিরোপা জয়ের উদযাপনে সতীর্থ ওয়েসলি ফোফানাকে সঙ্গে নিয়ে ফিলিস্তিনি পতাকা তুলে ধরেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত হামজা চৌধুরী। ফিলিস্তিনকে সমর্থন জানিয়ে ইসরায়েলি হামলার প্রতীকী প্রতিবাদ জানান তারা।

উল্লেখ্য, হামজার মা রাফিয়া একজন বাংলাদেশি এবং বাবা একজন গ্রেনাডিয়ান। হামজার জন্ম ও বেড়ে ওঠা ইংল্যান্ডে হলেও অনেকবারই তিনি বাংলাদেশে এসছেন। এখানকার আলো-বাতাসের সঙ্গে বেশ পরিচিত হামজা।

ফিলিস্তিনি পতাকা হাতে তুলে হামজা চলে এসেছেন আলোচনায়। ব্যতিক্রমী এই প্রতিবাদ এবং শিরোপা জয়ের উদযাপন নিমিষেই সাড়া ফেলেছে বিশ্বব্যাপী। মুহূর্তেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে এই ছবি ছড়িয়ে পড়েছে।