ছবি যখন কথা বলে, এ যেনো শুধু ছবি নয়!

বিশেষ প্রতিবেদন

ফেসবুকে ছবিটি পোষ্ট করেছেন রিজওয়ানা নূপুর। খুব সাদামাটা অথচ ভীষণ সুন্দর, দুই শিশুর নিষ্পাপ মুখ।

এ ছবি দেখে অনেকে অনেক রকম মন্তব্য করেছেন, তার মধ্যে থেকে কিছু সচেতনমূলক মন্তব্য তুলে ধরা হলো।

NISSAN KHAN নামে একজন লিখেছেন_
দেশের বিপুলসংখ্যক মানুষ যখন নিয়মনীতির ধার ধারছেন না, কোন সতর্কবাণী তাদের সচেতন করতে পারছে না; তখন এই ছবিটি হয়তো একটা ধাক্কা দেবে তাদের মরচে পড়া চেতনায়।

আনিকা নামে একজন লিখেছেন_
নিজ দায়িত্বে সচেতনতার বহিঃপ্রকাশ করছে। ছবি যখন কথা বলে তখন মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য এই ছবিটি যথেষ্ট নয় কি!! সুস্থ থাকার জন্য তথা নিজের প্রতিরক্ষার জন্য সচেতনতা আবশ্যক।

Shakhawat Hossain Molla নামের একজন লিখেছেন_
সচেতনতা এমন এক বিষয় যা জোর করে করানো যায় না ; তা নিজ দায়িত্ববোধ থেকেই জাগ্রত হয় যেমনটি হয়েছে এই পথ শিশুদের মধ্যে।

Likchon Barmon নামের একজন লিখেছেন_
নিজেকে সুরক্ষার জন্য পথশিশুও এখন সতর্ক। ওরাও সতর্কতার সাথে মাক্স ব্যাবহার করছে, হোকনা তা বিনা পয়সার। তাই সমাজকে তথা দেশকে সুরক্ষার জন্য আমাদের সবাইকে অবশ্যই সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে এবং মাক্স ব্যাবহার করতে হবে।

Limon Ahmed নামে একজন লিখেছেন_
তারাও করোনার ভয়ে আতঙ্কিত। নেই মাস্ক কেনার সামর্থ্য। করোনা থেকে বাঁচতে তাদের এই উদ্যোগ যেন আমাদের নতুন করে শিক্ষা দেয়,করোনা থেকে বাঁচতে ইচ্ছা শক্তিই যথেষ্ট।

রিমন খন্দকার নামে একজন লিখেছেন_
নিজ দায়িত্বে গুটা বিশ্বকে তাক লাগিয়ে সচেতনতার বহিঃপ্রকাশ!!! পুরো সমাজ ও নিজ সুরক্ষার জন্য অসহায় শিশু সমাজের সচেতনতায় প্রাকৃতিক আশ্রয় খুঁজে নিল।

এভাবে বিশ্বের মানুষগুলা যদি সবাই সচেতন থাকতো, তাহলে এই মরণঘাতী করোনা থেকে হয়তোবা মুক্তি পাওয়া সম্ভব হতো।